madaripurnews24.net

যে তিন ভুলে  ১৮ কোটি মানুষের স্বপ্ন ভঙ্গ সেমিতে খেলা হলো না বাংলাদেশের 

যে তিন ভুলে  ১৮ কোটি স্বপ্ন ভঙ্গ সেমিতে খেলা হলো না বাংলাদেশের 

সেমির স্বপ্ন নিয়ে দেশ ত্যাগ করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তবে ভালো ক্রিকেট খেললেও শেষ পর্যন্ত সেমিতে আর যাওয়া হয়নি টাইগারদের। আগামীকাল নিয়মরক্ষার ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ সময় ৩.৩০ মিনিটে মাঠে নামবে মাশরাফি বাহিনী। তার আগে আলোচনায় যে তিন কারণে সেমিতে যেতে পারেনি বাংলাদেশ। এক নজরে দেখে নিন আলোচনায় রয়েছে যে তিন কারণ-

১. নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মুশফিকের ‘বাচ্চাসূলভ’ রানআউট মিস

নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ একেবারে শেষ মুহূর্তে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে গিয়েছিল মাত্র ২ উইকেটের ব্যবধানে। ২৪৪ রান করেও দারুণ লড়াই করেছিল টাইগাররা।

কিন্তু ওই ম্যাচে ২৪৪ রান নিয়েও জিততে পারতো বাংলাদেশ। যদি না ইনিংসের দ্বাদশ ওভারে ৮ রানে থাকা কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসকে ‘বাচ্চাসূলভ’ ভুল করে মুশফিকুর রহীম রানআউটটা মিস কর না করতেন!

দ্বাদশ ওভারের দ্বিতীয় বলের ঘটনা। সদ্যই উইকেটে আসা রস টেলরের ডাকে সাড়া দিতে গিয়ে বিপদে পড়েন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। মিড অফ থেকে তামিম ইকবালের থ্রো ধরে উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহীম যখন উইকেট ভেঙে দেন, তখনো পপিং ক্রিজের অনেক বাইরে উইলিয়ামসন।

কিন্তু উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহীম করে বসেন এক অমার্জনীয় ভুল। তামিমের করা থ্রোটি সরাসরি ছিলো উইকেট বরাবরই। কিন্তু বাড়তি সতর্কতা নিতে গিয়ে স্ট্যাম্পের সামনে এসে বল ধরে উইকেট ভাঙতে যান মুশফিক। ঠিক তখন তার হাতে লেগে আগেই পড়ে যায় বেলস। যে কারণে আর আউট হলেন না উইলিয়ামসন। শেষ পর্যন্ত তিনি করেন ৪০ রান।

২. ডেভিড ওয়ার্নারের ক্যাচ মিস সাব্বিরের

অস্ট্রেলিয়ার কাছে বাংলাদেশে হেরেছিল ৪৮ রানের ব্যবধানে। অসিদের করা ৩৮১ রানের বিশাল ইনিংসের জবাবে বাংলাদেশ করেছিল রেকর্ড ৩৩৩ রান। রেকর্ড গড়েও জিততে না পারার আক্ষেপ বাংলাদেশ সমর্থকদের মনে। কিন্তু সেই ম্যাচে জিততেও পারতো বাংলাদেশ। একটা বড় ভুলের কারণেই ম্যাচটাতে এত ভালো খেলেও জেতা হলো না।

ওই ম্যাচে ডেভিড ওয়ার্নার ১০ রানের মাথায় যে জীবন পেয়েছিলেন সাব্বির রহমানের কল্যানে, সেই জীবন দিয়ে বাংলাদেশকেই হারিয়ে দিলেন তিনি।

ইনিংসের পঞ্চম ওভারেই মাশরাফি বিন মর্তুজার বলে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। সেখানে ফিল্ডার ছিলেন সাব্বির রহমান। কিন্তু সেই ক্যাচটি তিনি তালুবন্দী করতে পারেননি। এই এক ভুলেই ব্যক্তিগত ১০ রানের মাথায় জীবন পেয়ে যান অসি ওপেনার ওয়ার্নার।

সেই জীবন কাজে লাগিয়েই দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। শুধু সেঞ্চুরি করেই ক্ষান্ত হননি। নিজের ইনিংসকে নিয়ে গেছেন ১৬৬ রানে। অর্থ্যাৎ, সাব্বিরের এক ভুলে ১৫৬ রান বোনাস পেয়েছেন ওয়ার্নার এবং অস্ট্রেলিয়া। যদি এই অসি ওপেনার ১০ রানেই আউট হতেন, তাহলে শেষ পর্যন্ত জিততেও পারতো বাংলাদেশ।

৩. ১০ রানে রোহিত শর্মাকে জীবন দিলেন তামিম ইকবাল

ভারতের বিপক্ষে ডু-অর-ডাই ম্যাচ এজবাস্টনে। জিতলে টিকে থাকবে সেমির স্বপ্ন। হারলেই বিদায়। এমন সমীকরণের ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নামা ভারতকে শুরুতেই চেপে ধরতে পারতো বাংলাদেশ।

ভারতীয় ইনিংসের পঞ্চম ওভারেই ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন রোহিত শর্মা। ওই সময় তিনি ছিলেন ১০ রানে। মোস্তাফিজুর রহমানের শর্ট ডেলিভারিটি স্কয়ার লেগের দিকে উড়িয়ে মেরেছিলেন রোহিত। সেখানে ফিল্ডার ছিলেন তামিম ইকবাল। দৌড়ে গিয়ে সেটি একদম হাতেও পেয়ে গিয়েছিলেন; কিন্তু অবিশ্বাস্যভাবে হাত ফসকে পড়ে যায় ক্যাচটি।

আরো পড়ুন => মাশরাফির সমালোচকদের সামনে ঢাল হয়ে দাঁড়ালেন তামিম

১০ রানের মাথায় জীবন পেয়ে গেলেন রোহিত। তার মতো ভয়ংকর একজন ব্যাটসম্যানকে জীবন দেয়া বাংলাদেশ দলকে কতটা ভোগালো, সেটা ম্যাচের মাঝপথেই টের পেয়ে যায় টাইগাররা। ১০৪ রান করে আউট হন রোহিত। ৯৪ রান পেলেন তিনি বোনাস। আর বাংলাদেশ হারলো মাত্র ২৮ রানে। বোঝাই যাচ্ছে, কত বড় ভুলটা করেছিলেন তামিম ইকবাল। নিশ্চিত ক্যাচ নয়, ম্যাচটাই তিনি ফেলে দিয়েছিলেন ওই সময়।যে তিন ভুলে  ১৮ কোটি স্বপ্ন ভঙ্গ সেমিতে খেলা হলো না বাংলাদেশের 

এই তিনটি বড় ভুলের কারণে তিনটি ম্যাচ জেতা হলো না বাংলাদেশের। যদি বড় এই তিন ভুলের সঙ্গে ছোট ছোট ভুলগুলো না করতো টাইগাররা, তাহলে নিশ্চিত ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের আগেই সেমিফাইনালে নাম লেখাতো বাংলাদেশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here